পিএসজির কাছে মেসিকে কেনার অনুরোধ নেইমারের

share on:
মেসি ও নেইমার

পিএসজির কাছে মেসিকে কেনার অনুরোধ নেইমারের। যদিও ফরাসি ক্লাবটি বার্সাকে এখনো প্রস্তাব দেয়নি।

বার্সেলোনা ছাড়তে চান লিওনেল মেসি। খবরটা চাউর হওয়ার পর দলবদলের বাজারে নেমেছে বেশ কিছু ক্লাব। ম্যানচেস্টার সিটি দৌড়ে এগিয়ে থাকলেও মেসিকে পাওয়ার লড়াইয়ে পিএসজি শামিল হয়েছে। এটি কাল টুইটে জানান বিইন স্পোর্টসের ক্রীড়া সংবাদকর্মী ত্রানকেদি পালমেরি। এবার জানা গেল, পিএসজির কাছে মেসিকে কেনার অনুরোধ করেছেন নেইমার।

নেইমারের সঙ্গে মেসির সম্পর্ক আজকের না। বার্সায় চার মৌসুম খেলেছেন নেইমার। এ সময় মেসির সঙ্গে তাঁর বন্ধুত্বপূর্ণ সম্পর্কটা গড়ে ওঠে। ২০১৭ সালে নেইমার বার্সা ছেড়ে পিএসজিতে যোগ দিলেও সম্পর্ক থেকে গেছে আগের মতোই। আর্জেন্টাইন তারকা বেশ কয়েকবার নেইমারকে ফিরিয়ে আনার কথা বলেছেন বার্সাকে। মোটামুটি একজন আরেকজনের সুখে-দুঃখে পাশে থাকার চেষ্টা করেন। মেসি বার্সেলোনা ছাড়ার সিদ্ধান্ত জানানোর পর নেইমার তাঁর ক্লাবকে এই অনুরোধ করেছেন বলে জানান স্কাই স্পোর্টসের প্রধান প্রতিবেদক ব্রায়ান সোয়ানসন। তাঁর টুইট, ‘তাকে (মেসি) সই করানোর জন্য পিএসজিকে অনুরোধ করেছেন নেইমার। এ সপ্তাহে দুজনের মধ্যে কথা হয়েছে। তবে পিএসজি এখনো আনুষ্ঠানিক কোনো প্রস্তাব দেয়নি।

এর আগে কখনো এত জোর দিয়ে বার্সেলোনা ছাড়তে চাননি এই আর্জেন্টাইন তারকা। তবে একেবারেই যে ছাড়তে চাননি, তা নয়। এর আগে অন্তত দুবার এমন হয়েছে, যখন মেসি ভেবেছিলেন, বার্সেলোনার সঙ্গে পথ আলাদা করে ফেলাটাই শ্রেয়তর। ২০১৪ সাল তখন। বার্সেলোনাকে সফল ২০১২-১৩ মৌসুম উপহার দেওয়ার পর অসুস্থ হয়ে যান কোচ টিটো ভিয়ানোভা। হুট করে দায়িত্ব ছেড়ে দেন পেপ গার্দিওলার সাবেক এই সহকারী। মেসিদের নতুন গুরু হিসেবে আসেন আর্জেন্টাইন ম্যানেজার টাটা মার্টিনো। কিন্তু দুঃস্বপ্নের মতো এক মৌসুম কাটান মেসিরা।

একের পর এক চোট, ফর্মহীনতা, কোপা দেল দের রে’এর ফাইনালে রিয়াল মাদ্রিদের কাছে হার, চ্যাম্পিয়নস লিগের কোয়ার্টার ফাইনাল থেকে অ্যাটলেটিকো মাদ্রিদের কাছে হেরে বিদায়, সেই অ্যাটলেটিকোর কাছেই লিগ হেরে যাওয়া – সবকিছু মিলিয়ে বিরক্ত হয়ে উঠেছিলেন মেসি।

ওই সময়েই অসুস্থ ভিয়ানোভা সাবেক শিষ্যকে বুঝিয়ে-সুজিয়ে বার্সেলোনায় থাকার জন্য রাজি করে ফেলেন। এ কথা গত বছর জানিয়েছেন মেসিদের আরেক সাবেক কোচ ও ভিয়ানোভার সহকারী জর্ডি রৌরা। রেডিও কানাল বার্সেলোনাকে দেওয়া এক সাক্ষাৎকারে রৌরা বলেছিলেন, ‘মেসি ওই সময় বার্সেলোনায় থাকতেই চাচ্ছিল না। ও অন্য ক্লাবে যেতে চেয়েছিল। সে সময়টায় শারীরিক দিক থেকে টিটো খুব দুর্বল অবস্থায় ছিল। তারা এক সঙ্গে বসেছিল। যদিও আমি সেখানে ছিলাম না, কিন্তু আমি জানি তাদের মধ্যে কয়েক ঘণ্টা কথা হয়েছিল।

দু’বছর পর আবারও ক্লাব ছাড়ার চিন্তাভাবনা শুরু করেন মেসি। এবার ট্যাক্স ফাঁকির বেড়াজালে পড়ে। এই সংক্রান্ত মামলায় ২১ মাসের জন্য কারাবাসের শাস্তি পেয়েছিলেন মেসি। পরে যদিও চড়া জরিমানা দিয়ে শাস্তি এড়ান এই তারকা। আরএসিওয়ান কে দেওয়া সাক্ষাৎকারে লিওনেল মেসি স্বীকারও করেছিলেন এর কথা। কর সংক্রান্ত জটিলতা থেকে মুক্তি পেতে স্পেনই ছেড়ে চলে যেতে চেয়েছিলেন তিনি।

তৃতীয়বারের মতো এবার ক্লাব ছাড়তে চাইছেন মেসি। বলা বাহুল্য, এবারই তাঁর ক্লাব ছাড়ার সম্ভাবনা সবচেয়ে বেশি। হয়তো এবার সত্যি সত্যিই স্পেন ছাড়তে যাচ্ছেন আর্জেন্টাইন তারকা।

কাল ত্রানকেদি পালমেরি মেসির প্রতি পিএসজির আগ্রহ নিয়ে দুটি টুইট করেন। প্রথম টুইটে তিনি জানান, ‘পিএসজি মেসিকে জানিয়েছে তারা তার জন্য প্রস্তাব রাখবে।’ আরেক টুইটে বলেন, ‘মেসির ঘনিষ্ঠজনদের সঙ্গে পিএসজি যোগাযোগ করে জানিয়েছে তারাও প্রস্তাব দেবে।’ এদিকে ইএসপিএন তাদের সূত্রের বরাত দিয়ে জানিয়েছে কাল মেসি-নেইমারের মধ্যে ফোনে কথা হয়েছে। শুধু নেইমার নয় পিএসজি মিডফিল্ডার আনহেল ডি মারিয়াও নাকি মেসির সঙ্গে কথা বলেছেন। আর্জেন্টিনার জার্সিতে মেসি-ডি মারিয়া সতীর্থ। তবে পিএসজি বার্সা কিংবা মেসির বাবার কাছে আনুষ্ঠানিক কোনো প্রস্তাব রাখেনি। মেসির এজেন্ট তাঁর-ই বাবা হোর্হে মেসি।

তবে পিএসজির ক্রীড়া পরিচালক লিওনার্দো মেসির সঙ্গে বার্সার চুক্তির বর্তমান অবস্থা সম্পর্কে জানতে চেয়েছেন। এ তথ্য জানিয়েছে স্প্যানিশ সংবাদমাধ্যম ‘এএস’। চুক্তির ঠিক কোন শর্ত বলে বার্সা মেসিকে ধরে রাখতে চায় এবং আর্জেন্টাইন তারকা কত বেতন, কত দিন থাকতে চান—লিওনার্দো নাকি এসব তথ্যও জানতে চেয়েছেন। মেসির প্রতিনিধি দলকে পিএসজি ক্রীড়া পরিচালক নাকি বলেছেন প্রস্তাব রাখার আগে কিছু বিষয় অবশ্যই তাদের বিবেচনা করতে হবে। এর মধ্যে আর্থিক সংগতি নীতি (এফএফপি) গুরুত্ব পাচ্ছে।

মেসির সঙ্গে বার্সার বর্তমান চুক্তির মেয়াদ ফুরোবে ২০২১ সালে। তাঁর রিলিজ ক্লজ মূল্য ৭০ কোটি ইউরো। এ দামে তাঁকে কেনার ভাবনা পিএসজির নেই বলেই মনে করছে সংবাদমাধ্যমগুলো। তবে ফ্রি তে কিংবা এর চেয়েও কম দামে মেসির বার্সা ছাড়ার পথ খুললে পিএসজি চ্যালেঞ্জটা নিতে পারে বলে মনে করা হচ্ছে। এদিকে ফিফার কাছে দলবদলের প্রাথমিক অনুমতিপত্র চেয়েছেন মেসি। এর মানে হলো, ফিফার অনুমোদন পেলে তিনি বিনা মূল্যে অন্য কোনো দলে যেতে পারবেন।

ফেসবুকে সংস্কৃতি ডটকমের পেইজে লাইক দিন এখানে ক্লিক করে।

Facebook Comments
share on: